বুধবার, ০৫ অগাস্ট ২০২০, ০৩:৫০ অপরাহ্ন

প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার থেকে বঞ্চিত হলো ইসলামপুরের ৭ শতাধিক পরিবার

সংবাদদাতার নাম
  • প্রকাশ সময় : শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০
  • ২০১ দেখেছেন

এম. কে. দোলন বিশ্বাস: জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এক অদৃশ্য শক্তির কালোথাবায় নিমজ্জিত হয়েছে বন্যার্তদের ঈদের আগে ত্রাণ সামগ্রী। এতে ভেস্তে গেলো বন্যাকবলীত এলাকায় সাংবাদিকদের প্রস্তুতকৃত তালিকায় অতিদরিদ্রদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার ‘ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ’ কার্যক্রম।
জানা যায়, চলমান বন্যায় উপজেলার অধিকাংশ এলাকা বন্যাকবলীত হয়। এতে চরম দূর্ভোগের শিকার হন বিশেষ করে অতিদরিদ্র পরিবারের লোকজন। প্রতিদিন ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত বানভাসি মানুষের খোঁজখবর নিচ্ছেন স্থানীয় এমপি ফরিদুল হক খান দুলাল, সংরক্ষিত আসনের এমপি হোসনে আরা ও পৌর মেয়র আব্দুল কাদের সেখসহ বন্যাকবলীত এলাকার ইউপি চেয়ারম্যানরা।
বন্যার্ত অতিদরিদ্র জনগোষ্ঠীর দূর্ভোগ ও আহাজারির খবর জাতীয় দৈনিক, টেলিভিশনসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রকাশ হলে দৃষ্টি পড়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের। ফলে অতিদরিদ্র পরিবারের জন্য প্রধানমন্ত্রী বরাদ্দ করেন বিশেষ ঈদের আগে ত্রাণ সামগ্রী। উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন বন্যাকবলীত এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ওই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয়ে। বন্যাকবলীত
ইউনিয়নগুলো হলো কুলকান্দী, বেলগাছা, চিনাডুলী, সাপধরী, নোয়ারপাড়া, ইসলামপুর সদর ও পার্থশী।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয় থেকে বলা হয়, প্রতিটি ইউনিয়নে একশত জন অতিদরিদ্রর মাঝে ওই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হবে। প্রতিজনের ত্রাণ সামগ্রিতে থাকার কথা ছিল চাল, ডাল, তেল, চিনিসহ অন্তত আড়াই হাজার টাকা মূল্যের জিনিস।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয় থেকে ত্রাণ সামগ্রীগুলো সঠিকভাবে বিতরণের জন্য সুবিধাভোগিদের নামের তালিকা প্রস্তুত করতে দেশের প্রথম বারের মতো দায়িত্ব দেয়া হয় স্থানীয় কর্মরত সাংবাদিকদের।

ইসলামপুর প্রেসক্লাব সূত্রে জানা গেছে, অতিতে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে নানাবিধ অভিযোগ থাকায় বন্যাকবলীত এলাকায় এবার সঠিকভাবে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ত্রাণ সামগ্রী ঈদের আগে বিতরণ করতে একাধিক গ্রুপে সাংবাদিকরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে সুবিধাভোগীদের নামের তালিকা প্রস্তুত করেন। কিন্তু এক অদৃশ্য শক্তির কালোথাবায় তা নিমজ্জিত হয়। ফলে ঈদের আগে প্রধানমন্ত্রীর উপহার থেকে বঞ্চিত হতে হলো বানভাসি অতিদরিদ্রদের।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কখনো নৌকাযোগে, কখনো পানিতে ভিজে, আবার কখনো কাঁদায় হেঁটে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সাংবাদিকরা সুবিধাভোগীদের নামের তালিকা প্রস্তুত করায় অনেকটায় সঠিকভাবে ত্রাণ সামগ্রী পাওয়ার আশায় স্বস্তিবোধ করেন অতিদরিদ্ররা।

শুক্রবার (৩১ জুলাই) সকালে উপজেলার চিনাডুলী ও সদর ইউনিয়নে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের জন্য সিদ্ধান্তও হয়। কিন্তু এতে বাঁধসাদে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এক ‘অদৃশ্য শক্তির কালোথাবা’। ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ নিয়ে বিপাকে পড়েন খোদ প্রকল্প কর্মকর্তা! ত্রাণ বিতরণ থেকে দূরে সরেন সাংবাদিকরা।
ইসলামপুর প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি খাদেমুল হক বাবুল ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ যৌথভাবে জানান, ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রেরিত উপহার ত্রাণ সামগ্রিগুলো যাতে সঠিকভাবে বিতরণের লক্ষ্যে সাংবাদিকদের দায়িত্ব দেয়ার পর থেকে নৌকাযোগে বাড়ি বাড়ি গিয়ে আমরা অতিদরিদ্র সুবিধাভোগীদের নামের তালিকা করি। ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের সিদ্ধান্ত হয়। সুবিধাভোগিদের মাঝে সিলিপও বিতরণ করা হয়। কিন্ত হঠাৎ করে প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয় থেকে আমাদের জানানো হয় আপত্তিকর কথা। দাবি করা হয় অযৌতিক। পরে আমরা ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ থেকে বিরত থাকতে বাধ্য হয়েছি।

মহনা টিভির জেলা প্রতিনিধি ওসমান হারুনী জানান, ‘আমরা সুবিধাভোগিদের নামের তালিকা প্রস্তুত করলেও অদৃশ্যের শক্তির থাবায় শেষ পর্যন্ত ঈদের আগে দরিদ্রদের মাঝে ওই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা গেলো না।’

প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান টিটু জানান, প্রধানমন্ত্রীর উপহার ত্রাণ সামগ্রীগুলো সঠিকভাবে বিতরণের লক্ষ্যে সাংবাদিকদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল।
এখন জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় ঈদের আগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা গেলো না।

বিশেষ সূত্রে জানা যায়, ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে হঠাৎ সম্পৃক্ত লোকজনের পরিধি বৃদ্ধি করতে বলা হলে সুষ্ঠু বিতরণের স্বার্থে সাংবাদিকদের তরফ থেকে আপত্তি তোলা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের মোবাইলফোনে একাধিকার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি কল রিসিভ না করায় তাঁর কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

ঢাকায় প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় বিটে বিভিন্ন গণমাধ্যমের কর্মরত সাংবাদিকরা জানিয়েছেন, বানভাসিদের দুর্ভোগের খবর গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার-প্রকাশ হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিগোচর হয়েছে। ফলে অধিকসংখ্যক ত্রাণ বরাদ্দ আসে যমুনা-ব্রহ্মপুত্র বিধৌত ইসলামপুরে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীতে আরোও সংবাদ
Copyright BY

themesba-lates1749691102